২১ মে ,মঙ্গলবার, ২০১৯

শিরোনাম

> বিশেষ প্রতিবেদন

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

২৩ জুলাই ,সোমবার, ২০১৮ ২২:৪৮:৪৯

‘খারাপ কাজ না করলে ইঞ্জেকশন দিত’


‘খারাপ কাজ না করলে ইঞ্জেকশন দিত’


‘তারা আমার লগে খারাপ কাজ করতে চাইত। খারাপ কাজ না করলে ইঞ্জেকশন দিত। হাত মিলাইবার কথা কইয়া সুঁই ঢুকে দিত। যখন সুঁইগুলা দিত, তখন মাথা ঘুইরা পইরা যাইতাম, অজ্ঞান হইতাম; কিচ্ছু কইতে পারতাম না’- এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন সৌদি ফেরত নির্যাতনের শিকার নারী রেখা (ছদ্মনাম)।

গৃহকর্মী হিসেবে সৌদি আরবে গিয়েছিলেন রেখা। সেখানে একটি বাসায় ছিলেন ৭ মাস। কিন্তু এই কয় মাসে বাসার মালিক, মালিকের স্ত্রী ও সন্তানরা তার ওপর অমানবিক নির্যাতন চালান বলে অভিযোগ তার। 

নির্যাতনে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ঠিকমতো কথাও বলতে পারছিলেন না রেখা। কিছু সঠিক তথ্য দিলেও বেশির ভাগ সময়েই তিনি উল্টাপাল্টা বকছিলেন। অবশ্য বাসার মালিক তাকে ইঞ্জেকশন দেওয়ার পর আর কী হতো, তা বলতে পারেননি জোছনা। 

পরশু (২১ জুলাই) রাতে এয়ার এরাবিয়ার একটি বিমানে গৃহকর্মী হিসেবে গিয়ে নির্যাতনের শিকার হওয়া ৪৩ জন নারী দেশে ফিরেছেন। তারা সকলে সৌদির ইমিগ্রেশন ক্যাম্পে ছিলেন। তাদের মধ্যে রেখাও ছিলেন একজন। 

সৌদি ফেরত অন্য নারীদের অবস্থা স্বাভাবিক মনে হলেও রেখা ছিলেন পুরোপুরি অস্বাভাবিক। শাহজালাল বিমানবন্দরে ফ্লাইট থেকে নামার পর তাকে এক নারীর মাধ্যমে বের করে আনা হয়। এরপর তাকে কিছুক্ষণের জন্য একটি মালবাহী স্ট্রেচারে বসিয়ে রাখা হয়। পরে তার হাতে ব্র্যাকের অভিবাসন শাখা থেকে আগত স্বেচ্ছাসেবকরা খাবারের প্যাকেট তুলে দেন। সেই খাবার খাওয়ার ফাঁকে ফাঁকে জোছনার কথা হয় সাংবাদিকদের।

সৌদি ফেরত ওই নারী মাঝেমধ্যে তার বাবার নাম, গ্রাম, জেলার নাম বলতে পারলেও পরক্ষণই আবার সব ভুলে যাচ্ছিলেন। বারবার সৌদির সেই বাসার মালিকের নির্যাতনের গল্পগুলো বলছিলেন আর বাংলা-আরবি মিশিয়ে কী কী সব বলছিলেন! বারবার তার শরীরে ইঞ্জেকশন পুশ করার কথাও বলছিলেন। তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় বাসার মালিক কেন ইঞ্জেকশন পুশ করতেন, তা তিনি নিজেও জানতেন না। 

রেখার ভাষ্য, খারাপ কাজ করতে চাইলে বাঁচার জন্য তিনি সবার সামনে বসে নামাজ পড়তেন। তার শরীরে ৩০টা ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়েছে। তার মালিক বলতেন, ইদরা (আরবিতে ইঞ্জেকশন) ভালো, এটা বলেই পুশ করতো। 

‘সুঁই ফুটানোর লগে লগে আমার মাথা ঘুরান দিয়া পইরা যাইতাম। মাটিত পইড়া অজ্ঞান হইয়া যাইতাম। ওরা আমারে মাইরা পাগল বানাইছে। আল্লাহ ওগো বিচার কইরবে।’ 

রেখা আরও জানান, তার কোনো এক সময় বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু স্বামীর সঙ্গে সংসার করা হয়নি। সৌদি যাওয়ার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত বাবার বাড়িতেই থাকতেন। বাড়তি আয়ের আশায় দালালের মাধ্যমে সৌদি পাড়ি জমান তিনি। মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে রেখা যে দেশে ফিরছেন, খবরটি সে আসার দিন পর্যন্ত জানতে না তার পরিবারের সদস্যরা। 

পরে তার পরিবারকে ব্র্যাকের অভিবাসন শাখার পক্ষ থেকে যোগাযোগ করে জানানো হয়েছে। অবশ্য এখনো ব্র্যাকের অভিবাসন শাখায় তাকে রাখা হয়েছে। 

আগামীকাল (২৪ জুলাই) রেখাকে মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন অভিবাসন শাখার সংশ্লিষ্টরা। 


অরিন/নিউজ টোয়েন্টিফোর


খাদ্যে ভেজাল মিশ্রণকারীদের মৃত্যুদণ্ড দাবি নাসিমের
মাদারীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় শিশু নিহত
ছাত্রীকে ধর্ষণ করে ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দিল পুলিশ
পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে আমির-ওয়াহাব-আসিফ
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের অ‌বৈধ স্থাপনা উ‌চ্ছেদ
ট্রেনের তেল চুরি, আটক ৪
চুয়াডাঙ্গায় বিভিন্ন মামলার ১৩ আসামি গ্রেপ্তার
‘ফখরুলের সংসদে যাওয়া উচিত ছিল’
ইরাকে মার্কিন দুতাবাসের কাছে রকেট হামলা
রাঙ্গামাটিতে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা
বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত
চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৮ মামলার আসামি নিহত
আসাদ গেটে ট্রাকচাপায় নিহত ১
হাজারীবাগে ‘বন্দুকযুদ্ধে দুই ছিনতাইকারী’ নিহত
ছাত্রী ও শিক্ষকের স্ত্রীদের সঙ্গে যৌন হয়রানি!
ছাত্রলীগ নেতার আঙ্গুল কর্তন: গ্রেপ্তার ১
রংপুরে বসুন্ধরা ও কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের ইফতার
বান্দরবানে নিহত সেনার দাহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায়
'কৃষকদের বাঁচাতে চাল আমদানি বন্ধ করা হবে'
স্কোয়াডে আন্দ্রে রাসেল, রিজার্ভ বেঞ্চে ব্রাভো ও পোলার্ড
খাদ্যে ভেজাল মিশ্রণকারীদের মৃত্যুদণ্ড দাবি নাসিমের
মাদারীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় শিশু নিহত
ছাত্রীকে ধর্ষণ করে ভেন্টিলেটর দিয়ে ফেলে দিল পুলিশ
পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে আমির-ওয়াহাব-আসিফ
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের অ‌বৈধ স্থাপনা উ‌চ্ছেদ
ট্রেনের তেল চুরি, আটক ৪
চুয়াডাঙ্গায় বিভিন্ন মামলার ১৩ আসামি গ্রেপ্তার
‘ফখরুলের সংসদে যাওয়া উচিত ছিল’
ইরাকে মার্কিন দুতাবাসের কাছে রকেট হামলা
রাঙ্গামাটিতে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা
বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত
চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৮ মামলার আসামি নিহত
আসাদ গেটে ট্রাকচাপায় নিহত ১
হাজারীবাগে ‘বন্দুকযুদ্ধে দুই ছিনতাইকারী’ নিহত
ছাত্রী ও শিক্ষকের স্ত্রীদের সঙ্গে যৌন হয়রানি!
ছাত্রলীগ নেতার আঙ্গুল কর্তন: গ্রেপ্তার ১
রংপুরে বসুন্ধরা ও কিং ব্র্যান্ড সিমেন্টের ইফতার
বান্দরবানে নিহত সেনার দাহ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায়
'কৃষকদের বাঁচাতে চাল আমদানি বন্ধ করা হবে'
স্কোয়াডে আন্দ্রে রাসেল, রিজার্ভ বেঞ্চে ব্রাভো ও পোলার্ড
প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতল বাংলাদেশ
প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা, গৃহবধূকে অর্ধনগ্ন করে লাঠিপেঠা 
ভাতিজির মেয়েকে ধর্ষণ করে ধরা বিএনপি নেতা
‘ব্রেকআপের পর মনে হয়েছিল আমি বাঁচব না’
কেন ইরাক থেকে লোকজন সরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র?
পুতুল খেলার কথা বলে শিশু ধর্ষণচেষ্টা!
বাড়াবাড়ি করবেন না, যুক্তরাষ্ট্রকে চীন
মাদারীপুরের নিহত ও নিখোঁজদের বাড়িতে মাতম
ইরান ইস্যুতে পাক জেনারেলের হুঁশিয়ারি
আহতদের না দেখেই ফিরলেন শোভন-রাব্বানী!
শিক্ষার্থী মারধরের সেই নেত্রী শায়লার ছবি ভাইরাল 
পরকীয়া প্রেমে প্রতিবাদ করায় অন্তঃসত্বা নারীকে খুন
'প্রিয় নেত্রী পরম মমতাময়ী প্রতি ঋণের বোঝা আরও বেড়ে গেল'
চুল পড়া বন্ধ করে ৪ খাবার
‘বিশ্বকাপে বাংলাদেশ শক্তিশালী দল’
চোট পেয়ে মাঠ থেকে উঠে গেলেন সাকিব
সব বেসরকারি টিভি চ্যানেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে যুক্ত হচ্ছে কাল
শমী কায়সার পেলেন সরকারি অনুদানের ৬০ লাখ টাকা
চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর যা বললেন মাশরাফি
দেশে ফিরেই গণভবনে গেলেন কাদের

সব খবর