১৮ জুন ,মঙ্গলবার, ২০১৯

শিরোনাম

> অন্যান্য >>

>> বিদেশি মিডিয়া

 

নিউজ টোয়েন্টিফোর ডেস্ক

৪ এপ্রিল , বুধবার, ২০১৮ ২০:৩১:১০

খবর পার্সটুডের

শরণার্থী ফেরত নয়, রাখাইনে বৌদ্ধ স্থানান্তরের পরিকল্পনা মিয়ানমারের!


শরণার্থী ফেরত নয়, রাখাইনে বৌদ্ধ স্থানান্তরের পরিকল্পনা মিয়ানমারের!

নির্যাতনের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা


বাংলাদেশে অবস্থানরত বৌদ্ধ সম্প্রদায়কে রোহিঙ্গা অঞ্চলে স্থানান্তরের অনুমতি দিয়েছেন মিয়ানমারের কর্মকর্তারা। রাখাইন প্রদেশের স্থানীয় সরকার ওই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য রোহিঙ্গা মুসলমানদের জায়গা জমি অধিগ্রহণ করেছে। 

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এ থেকে বোঝা যায়, বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা মুসলমানদের ফিরিয়ে নেয়ার কোনো ইচ্ছাই মিয়ানমার সরকারের নেই। তাদের মতে, বাংলাদেশের বৌদ্ধদেরকে রোহিঙ্গা মুসলমানদের বসতবাড়িতে স্থানান্তরের পরিকল্পনা মিয়ানমারের নতুন ষড়যন্ত্র যা কিনা রোহিঙ্গাদের নিজ মাতৃভূমিতে ফিরিয়ে নেওয়া সংক্রান্ত চুক্তির লঙ্ঘন। বর্তমানে কক্সবাজারের বিভিন্ন আশ্রয় শিবিরে প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান অবস্থান করছে।

প্রায় চার মাস আগে মিয়ানমার ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে শরণার্থী প্রত্যাবাসন বিষয়ে চুক্তি হয়। ওই চুক্তিতে মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেশে ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিলেও আজ পর্যন্ত তা বাস্তবায়ন করেনি। সূত্রমতে, বাংলাদেশের বৌদ্ধদেরকে মিয়ানমারে নিয়ে যাওয়ার ষড়যন্ত্র করছে মিয়ানমার। আর এ থেকে বোঝা যায় রোহিঙ্গা মুসলমানদেরকে ফিরিয়ে নেওয়ার কোনো ইচ্ছা তাদের নেই। তারা চায় ওই অঞ্চলের জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনতে। 

২০১৬ সালের শেষের দিকে জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনার কর্মসূচি হাতে নিয়েছিল মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ। সেসময় দেশটির কর্মকর্তারা ঘোষণা করেছিলেন, রাখাইন রাজ্যে বৌদ্ধদের জন্য নতুন সাতটি গ্রাম নির্মাণ করে দেওয়া হবে। ওই ঘোষণার দেড় বছর পর রাখাইন অঞ্চলে মুসলমানদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। হত্যা, নির্যাতনের মাধ্যমে তাড়িয়ে দেওয়া হয় প্রায় সব রোহিঙ্গা মুসলিমকে। এ থেকেই মিয়ানমারের সেনা ও উগ্র বৌদ্ধদের মুসলিম বিতাড়নের উদ্দেশ্য স্পষ্ট হয়ে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনার যে কর্মসূচি হাতে নিয়েছিল মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ, সেটা বাস্তবায়ন করতেই ওই হামলা চালানো হয়। আর দুই দেশের মধ্যে চুক্তির কয়েক মাস পার হয়ে গেলেও প্রত্যাবাসন শুরু না করায় সেটাই এখন স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

২০১৪ সালের এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে মংডু এলাকায় মোট জনগোষ্ঠীর মাত্র দুই শতাংশ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের এবং অবশিষ্ট সবাই মুসলমান। এ কারণে গত দুই বছর ধরে উগ্র বৌদ্ধরা এমনভাবে মুসলমানদের ওপর নৃশংস গণহত্যা চালিয়েছে যাতে পালিয়ে যাওয়া মুসলমানরা দেশে ফিরে আসার কথা চিন্তাও করতে না পারে।

মানবাধিকার সংগঠনসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো মিয়ানমারের সেনা ও উগ্র বৌদ্ধদের অপরাধযজ্ঞকে জাতিগত শুদ্ধি অভিযান হিসেবে উল্লেখ করেছে। ভূ-রাজনৈতিক বিষয়ক গবেষক অ্যন্থেনিও কারতালুচি বলেছেন, "জাতিগত শুদ্ধি অভিযান বলতে যা বোঝায় তা মিয়ানমারের রাখাইনে ঘটছে।" 

মিয়ানমারে বৌদ্ধদের পক্ষে জনসংখ্যার কাঠামোয় পরিবর্তন আনার জন্য এমন সময় চেষ্টা চলছে যখন মানবাধিকারের দাবিদার পাশ্চাত্যের দেশগুলো রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার বিষয়ে সম্পূর্ণ নীরব রয়েছে। এই নীরবতা মুসলিম গণহত্যা চালাতে মিয়ানমার সরকারকে আরো উৎসাহিত করেছে।


ইতিহাস গড়ল টাইগাররা
নাইজেরিয়ায় তিনদফা বোমা হামলায় নিহত ৩০
মিশরের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মুরসির মৃত্যু
সাকিবের সেঞ্চুরি, লিটনের অর্ধশত
সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ফের সাকিব
ঘুম থেকে জাগিয়ে ছাত্রকে বলাৎকার করল শিক্ষক
আজও অর্ধশত হাকালেন সাকিব
৬ হাজার রান সাকিবের
রান আউটের ফাঁদে তামিম
মাদারীপুরে হাত-পায়ের রগ কেটে যুবককে খুন
‘বালিশ মাসুদুল ছাত্রদলের ভিপি ছিলেন’
দিনাজপুরে ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, নিহত ১
রশিদ হত্যা মামলায় পাঁচজনের যাবজ্জীবন
এসআই পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে গিয়ে দুই যুবক ধরা
রুবেল হত্যায় বাবা-ছেলের যাবজ্জীবন
হানিফ পরিবহনের বাসের চাপায় ছাত্র-শিক্ষক নিহত
ঘুমের ওষুধ খাইয়ে সন্তানকে হত্যা করল মা
প্রতিশোধ নিতে প্রেমিকের মুখে অ্যাসিড নিক্ষেপ
ঘুম থেকে তুলে সন্তানকে গলাকেটে হত্যা করল মা
শিশুর চিৎকারে ধরা ‘ধর্ষক’ যুবক
ইতিহাস গড়ল টাইগাররা
নাইজেরিয়ায় তিনদফা বোমা হামলায় নিহত ৩০
মিশরের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মুরসির মৃত্যু
সাকিবের সেঞ্চুরি, লিটনের অর্ধশত
সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ফের সাকিব
ঘুম থেকে জাগিয়ে ছাত্রকে বলাৎকার করল শিক্ষক
আজও অর্ধশত হাকালেন সাকিব
৬ হাজার রান সাকিবের
রান আউটের ফাঁদে তামিম
মাদারীপুরে হাত-পায়ের রগ কেটে যুবককে খুন
‘বালিশ মাসুদুল ছাত্রদলের ভিপি ছিলেন’
দিনাজপুরে ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, নিহত ১
রশিদ হত্যা মামলায় পাঁচজনের যাবজ্জীবন
এসআই পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে গিয়ে দুই যুবক ধরা
রুবেল হত্যায় বাবা-ছেলের যাবজ্জীবন
হানিফ পরিবহনের বাসের চাপায় ছাত্র-শিক্ষক নিহত
ঘুমের ওষুধ খাইয়ে সন্তানকে হত্যা করল মা
প্রতিশোধ নিতে প্রেমিকের মুখে অ্যাসিড নিক্ষেপ
ঘুম থেকে তুলে সন্তানকে গলাকেটে হত্যা করল মা
শিশুর চিৎকারে ধরা ‘ধর্ষক’ যুবক
'বিশ্বকাপ থেকে বাদ পড়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ'
যেসব পণ্যের দাম বাড়বে-কমবে!
বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব নিশ্চিত করল বাংলাদেশ
আরো ২২ পণ্য নিষিদ্ধ
কুকুরের সঙ্গে মিলিত হতে চায় স্বামী, বিপাকে স্ত্রী!
'বড় জায়গায় হাত দিলে হাত পুড়ে যায়'
গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানে কাঁদলেন নুসরাত
ধর্ষণে বাধা দেয়ায় প্রেমিকাকে হত্যার পর মরদেহ ধর্ষণ
বাজেটে কমবে স্বর্ণের দাম!
ইতিহাস গড়ল টাইগাররা
 ২০ লাখ টাকা অনুদান পেলেন দুই অভিনেতা
কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার খেলার সূচি
গ্রেপ্তার হলেন ওসি মোয়াজ্জেম
সাক্ষীকে হাত-পা কেটে হত্যা করল আসামি পক্ষ
বৃষ্টিতে পণ্ড হতে পারে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচে
রিয়াদে ২৮ বাংলাদেশির মানবেতর জীবন-যাপন
সিগারেট ধরাতে দিয়াশলাই না দেওয়ায়...
‘ইসরাইল আমেরিকার বন্ধু নয়’
মামীকে হত্যার দায়ে ভাগ্নের মৃত্যুদণ্ড 
দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে যুবলীগ নেতাকে হত্যা

সব খবর